স্টুডেন্ট লাইফে ফেসবুক থেকে ইনকাম করার উপায়

Earning : ৳1.200

ফেসবুক থেকে স্টুডেন্ট লাইফে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তা নিচে জেনে নেওয়া যাক। 

আমাদের চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করুন

পৃথিবীতে এখন  জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক। সবাই অবগত আছো যে ইউটিউব থেকে চ্যানেল বানিয়ে সেখান থেকে অনেক টাকা আয় করা যায়। তাহলে ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় এটা আমাদের এখন জানার বিষয় চলো এবার নিচে জেনে নেওয়া যাক।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ফেসবুক থেকে  আয় করার সুযোগ  করে দিয়েছে এখন। আপনারা সবাই  ইচ্ছে করলে ফেসবুক থেকে এখন প্রতিনিয়ত আয় করতে পারবেন সেটা নিয়েই আমার আজকের লেখা।

আমরা অধিকাংশ লােকই সোশ্যাল মিডিয়ার  ব্যবহার করে থাকি।  আমারা অধিকাংশ লোকই কোন না কোন দিক দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার করে থাকি। বর্তমান যুগে শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ-বৃদ্ধা সবাই কমবেশি  সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার করে থাকে।

আর এই জন্যই ফেসবুক কর্তৃপক্ষ  বিভিন্ন ভাবে আয়ের মাধ্যম করে দিয়েছে। তাহলে চলো  এবার জেনে নিই কিভাবে  ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়।

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার অনেক উপায় আছে। এখন আমি ক্রমান্বয়ে এগুলো ব্যাখ্যা করবো এবং আপনাকে সঠিক গাইডলাইন দিব যাতে আপনি কাল থেকেই ইনকাম শুরু করতে পারেন।

১। কিভাবে ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করা যায়ঃ

 এর  জন্য প্রথমে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে হবে।  সেই পেজে কনটেন্ট ভিডিও বা যেকোন বিষয়ের উপর প্রতিনিয়ত পোস্ট করতে পারবেন। আপনি এবার আপনার করা পোস্ট গুলো আপনার বন্ধু বা যোকেনাে উপায়ে  শেয়ার করতে থাকবেন।

তারপর দেখবেন আপনার পেজের লাইক এবং ফলোয়ারের অটো সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে  তখন আপনার পেজে আফিলিয়েট মার্কেটিং  করে আয় করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।  

এছাড়া  আপনার ফেসবুক পেজে যে কনটেন্ট নিয়মিত ডেলিভারি করছেন সেই কনটেন্ট রিলেটেড অনেক কোম্পানি আছে আপনি সেখান থেকে স্পনসরর্শিপ নিয়ে তাদের প্রোডাক্ট কে প্রমোট করতে পারবেন। তাই  আমাদের উচিত হবে কনটেন্ট দেওয়ার পূর্বে পরিকল্পনা করে সেটা দেওয়া। 

২। ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা আয়ঃ

মূলত  এটা এমন  একটি সার্ভিস যেটির মাধ্যমে আপনি নিজের বা অন্য কারো নতুন-পুরাতন প্রোডাক্ট বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।  এই জন্য কয়েকটি   অ্যাপ গুলো আগে ইন্সটল করে নিতে হবে সেটা হচ্ছে   Glowroad,shop101.তারপর এখানে একটা রেজিস্ট্রেশন করে ব্যাংক ডিটেইলস সহ সবকিছু দিয়ে সাবমিট করে দিবেন কাজ শেষ হল। এই অ্যাপ গুলোতে বিভিন্ন কোম্পানির জন্য  বিভিন্ন প্রোডাক্ট  পেতে পারেন।

এখন  সেই প্রোডাক্ট এর ছবি নিয়ে  আপনি সেটা ডাউনলোড করে নিন।  এরপর ফেসবুক মার্কেটপ্লেসে সেই ছবিগুলোকে লিস্ট করে দিব তারপর  সেখানে  মূল্য বেঁধে দিব তাহলেই হবে। উদাহরণ  ৫০০ টাজার কোন পণ্য ৬০০ টাকা মূল্য বেঁধে দিলে সেটা বিক্রয় করলে আপনার ১০০ টাকা লাভ হবে।এভাবে আপনি কিন্তু খুব সহজে ইনকাম করতে পারবেন 

৩। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে  আয়ঃ

আপনি আপনার ফেসবুক পেজ বা গ্রুপে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করতে পারবেন ইচ্ছে মতো মূলত কাজ কোন কোম্পানি  ব প্রোডাক্ট বিক্রি করে দিবেন  এবং যার বিনিময়ে তার  কিছু কমিশন দিবে আপনাকে এটা  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। 

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য অনেক ওয়েবসাইট আছে এখন  আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইটগুলোর অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ যোগদান করতে পারবেন  যেমন আমাজন, আলিবাবা,  আপনি ও এই ওয়েবসাইটগুলোতে অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে যোগদানের মাধ্যমে  আয় করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

৪। ফেসবুক এডস এর মাধ্যমে আয়ঃ

ফেসবুকে  টাকা ইনভেস্ট করার মাধ্যমে ফেসবুক থেকে  দ্রুত আয় করতে পারবেন ফেসবুক এড ব্যবহার করার মাধ্যমে। 

কোন ভালো  কোম্পানির প্রোডাক্ট যদি এফিলিয়েট লিংক আপনি ফেসবুক পেজ বা গ্রুপে শেয়ার করতে পারেন  যার দ্বারা আপনার প্রোডাক্টের প্রতি অল্প কিছু লোক  হলে ও ইন্টারেস্ট  থাকবে ফলে আপনার পোডাক্ট ও সেল হয়ে যাবে।

আর যদি আপনার অ্যাড ব্যবহার করতে পারেন তাহলে তো আর কোন কথায় নেই। আশা করি এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝতে পারতেন এই টেকনিকটা।

৫। ফেসবুক গ্রুপ থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়ঃ

এখানে একটা নিয়ম আছে সেটা হচ্ছে  আপনি এবং বলবেন আপনার অডিয়ন্সরা উভয়েই কথা বলতে পারবে। সেক্ষেত্রে আপনার গ্রুপে যদি ভালো কাজ করেন, তাহলে আপনার অডিয়েন্সরাই আপনার বিজনেসের মার্কেটিং করে দিবে। 

তাহলে বুজতেই পারছো ফেসবুক গ্রুপ তৈরি থেকে ও ভালো একটা আয় করতে পারবেন সেক্ষেত্রে, একটা জিনিস মাথায় রাখবেন সেটা হচ্ছে সমসময় আপনার গ্রুপে অডিয়েন্সদের বিভিন্ন একটিভিটির মাধ্যমে এনগেইজড রাখবা তাহলেই আপনার কাজ ভালো হবে।

৬। ফেসবুক মার্কেটিং ম্যানেজার হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করার উপায়ঃ

ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে আশা করি সবাই জানো। তাই এ বিষয়ে সংক্ষিপ্ত কিছু বলে শেষ করব । ফাইভার, আপওয়ার্ক এ ইদানিং ফেসবুক মার্কেটিং ম্যানেজার হিসেবে কাজ করার জন্য অনেক সুযোগ আছে।

ফেসবুক মার্কেটিং এর কাজে কেউ যদি দক্ষ হয় তাহলে আপনার আর কোন টেনশন নেই কারণ আপনি এখন সহজেই অনেক আয় করতে পারবেন এই ফ্রিলান্সিং এর মাধ্যমে। ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয় এবং মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকামের জন্য ফেসবুক সবচেয়ে ভালো মাধ্যম বলে আমি মনে করি।

সবশেষে বলব যে আমার বলা গাইডলাইন গুলো মেনে কাজ করলে আর আপনার যদি প্রবল ইচ্ছাশক্তি, পরিশ্রম করার মানসিকতা এবং হার না মানার প্রত্যয় থাকে  তাহলে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

Related Articles
Comments

You must be logged in to post a comment.