আপনি ছোট ফ্যামিলি থেকে? ক্যারিয়ার নিয়ে চিনতা করছেন? আপনার ব্যবসা করার ইচ্ছা, কিন্তু মূলধন কম?

Earning : ৳0.600

আমরা যারা ছোট ফ্যামিলির ছেলে তারা ১৮ বছর এর পর থেকেই আমাদের ফ্যামিলির হাল ধরার জন্য ক্যারিয়ার নিয়ে চিনতা ভাবনা করি।

আমাদের চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করুন

অনেকেতো ১৮ বছরের আগেই চিন্তা করা শুরু করে দেয়। কিন্তু কী করতে হবে তা কেউই ঠিক করতে পারেনা। আসলে টাকা ইনকাম করা কোনো কঠিন কাজ না।

বর্তমান বিশ্বে মানুষ অনেক দিক দিয়েই টাকা ইনকাম করতে পারে। তবে সবাই চায় ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করতে। হ্যাঁ, এটা ভালো সিদ্ধান্ত যদি আপনার ধৈর্য ভালো থাকে। কিন্তু আপনি যদি ছোট ফ্যামিলি থেকে হয়ে থাকেন তাহলে আপনার এই ধৈর্যটা কম হওয়া স্বাভাবিক।

কারণ আপনার এখন সবথেকে বেশি টাকার প্রয়োজন আর তার জন্য আপনি অপেক্ষাও করতে পারবেন না। তাই আমি বলবো আপনি আপাদতো ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করার চিন্তা সরিয়ে দেন।

আামি জানি আমার এই কথা শুনে অনেকে রেগে যাবে। তবে আমি বলে দেই যে আমি আপাদতো ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করার চিন্তা বাদ দিতে বলেছি। সবসময়ের জন্য না।

হ্যাঁ এর মানে এই না যে আপনি তা ছেড়ে দিবেন। আপনি যেই কাজই করেন না কেন কিছু সময়তো আপনি ফ্রি বা অবসর থাকবেন। ঐ অবসর সময়ে আপনি একটু ইন্টারনেটের কাজ করেন তাতে আপনার অনলাইন কাজ এর আইডিয়া বারবে।

ভবিষ্যতে আপনি তা কাজে লাগাতে পারবেন। এটা বাদ দেয়া যাক কারন এটা অপশনাল সারা জীবনের কাজ না। টাকা আয় করার জন্য সর্ব প্রথম আপনাকে কাজ বেছে নিতে হবে আপনি কোন কাজে বেশি খুশি থাকেন।

ঐ কাজটি যেমনই হোক আমি বলবো আপনি ঐ কাজটি করেন যদি চাকরি হয়ে থাকে তাহলে করেন কোনো সমস্যা নেই। চাকরি করতে চাইলে আমি বলবো যে আগে আপনি এমন একটি কাজ শিখেন যার মূল্য অনেক এবং কাজও সহজেই পাওয়া যায়।

বর্তমানে অনেক কাজ আছে যেগুলো শিখলে আপনি ভালো বেতনে চাকরি নিতে পারবেন এবং এতো একটা পড়ালেখাও প্রয়োজন হয়না। আপনি যদি এস.এস.সি বা এইচ.এস.সি পাস হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কম্পিউটার এর কাজ শিখতে পারেন।

এখন বর্তমান বিশ্বে এটার মূ্ল্য অনেক। আপনি যদি কম্পিউটার এর কাজ একটু ভালো জানেন তাহলে চাকরি করে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।

কারণ আপনি বাংলাদেশে দেখতে পারবেন যে অনেক বড় বড় শিক্ষিত মানুষ আছে যারা কম্পিউটার এর কোনো কাজই যানেনা। যার কারনে এখন এই কাজের জন্য এতো একটা পড়া-লেখা লাগেনা কাজ জানলে ভালো বেতনে চাকরি পাওয়া যায়।

এছাড়াও আরো অনেক কাজ আছে যেগুলো শিখে আপনি ভালো ভালো বেতনে চাকরি পেতে পারেন। আমি বলবো আপনি আগে খোজ নেন কোন কাজটির মূল্য আপনার এলাকাতে বা শহড়ে বেশি সেই কাজটি শিখে আপনি কাজ শুরু করে দেন।

তারপর যারা ব্যবসা করে ইনকাম করতে চান তবে পর্যাপ্ত মূলধন নেই অনেক কম মূলধন। আমি বলবো ব্যবসা করতে চাইলে মূলধনের প্রয়োজন অনেক কম।

কারণ ব্যবসা অনেক ধরনের রয়েছে। এমনতো না যে আপনাকে যেটাতে বেশি মূলধন লাগে সে ব্যবসাই শুরু করতে হবে। এমন অনেক ব্যবসা আছে আপনি ৫০০০ থেকে ১০০০০ টাকা হলে শুরু করতে পারেন।

তবে আমি বলবো যেকোনো ব্যবসা শুরু করার আগে আপনি সেটা সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেন। যাই হোক যে ব্যবসাই শুরু করেন যেহেতু আপনি ছোট ফ্যামিলির একজন সদস্য তাই আপনার কম মূলধন দিয়ে শুরু করা যায় এমন ব্যবসা শুরু করা উচিত।

অনেকে কম মূলধনের ব্যবসা করতে লজ্জা পায় মানুষ কি বলবে। মানু যাই  বলুক আপনিতো আপনার ব্যবসাকে ভালোবাসেন? যদি আপনি আপনার ব্যবসাকে ভালো না বাসেন তাহলে আপনার দ্বারা ব্যবসা সম্ভবনা।

ব্যবসা প্রেমিকার মতো আপনি ব্যবসাকে ভালোবাসলে ব্যবসাও আপনাকে ভালোবাসবে আর আপনি না বসালে সেও আপনার দিকে ফিরে তাকাবেনা। ব্যবসাকে ভালোবাসতে হবে।

এবার মানুষ যাই বলুক।মনে রাখবে সকল বড় কিছুর শুরু ছোটো থেকেই হয়। এবার সেটা ব্যবসা হোক আর যাই হোক। আপনি একজন লেখককেই দেখেন লেখক কি তার লিখা একদিনেই ভেবে পুরোটা লিখে ফেলে না একটু একটু ভাবে একটু একটু লিখে।

আবার সফল হতেও অনেক সময় লাগে। যাই হোক এই উদাহরণ না দেই ব্যবসায়ের উদাহারণ দেই একটা। আপনারা সকলেই MBA CHAI WALA কে অবস্যই চিনবেন। না চিনলে ইউটিউব এ সার্চ করে দেখতে পারেন।

সে তার চায়ের ব্যবসা শুরু করেছিল ১০০০০ টাকা মূলধন নিয়ে। কতো মানুষ তাকে কত কথা বলেছে এমনকি তার পরিবারের লোকজনও তাকে অনেক কথা শুনিয়েছে। কিন্তু সে কারো কথা কানে দেয়নি।

তার দীর্ঘ ৪ বছরের এই প্রতিভায় সে আজ একজন সফল চা ব্যবসায়ী এখন সে কোটি কোটি টাকা আয় করছে। সে যদি চা দিয়ে সফল হতে পারে তাহলে আপনি কেন পাবেন না। তাই আমি বলবো ছোট থেকেই শুরু করতে। প্রথমে বড় ব্যবসাতে যাওয়া ঠিকনা।

Related Articles
Comments

You must be logged in to post a comment.