আধুনিক সমাজ প্রযুক্তি নির্ভর

Earning : ৳20.600

আধুনিক সমাজ প্রযুক্তিনির্ভর একটি  সমাজ। এই প্রযুক্তি শব্দটি ক্ষুদ্র হলেও, এর গভীরতা কিন্তু অনেক ব্যাপক। এই আধুনিক প্রযুক্তির কল্যাণে সমাজ এখন অনেক উন্নতি সাধন করছে। মানুষ এখন প্রায় সর্বক্ষেত্রেই প্রযুক্তির নির্ভর হয়ে উঠেছে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এই প্রযুক্তির ব্যবহার অনেক ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আমাদের চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করুন

প্রযুক্তির ব্যবহারে এখন মানুষ কল্পনাকেও বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হচ্ছে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনকে আরও উন্নত এবং সুন্দর করে তোলার জন্য প্রতিনিয়তই তৈরি করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের প্রযুক্তি। আমাদের কাজের সময় কমিয়ে এনেছে এইসব আধুনিক প্রযুক্তি। এখন বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করেও বিভিন্ন প্রকার কাজকর্ম সাধন হচ্ছে। 

 কিন্তু সবকিছুরই একটি ভালো মন্দ দিক রয়েছে। ঠিক তেমনি প্রযুক্তি আমাদের জীবনে ভাল ও মন্দ দুইভাবেই প্রভাব ফেলছে। সমাজ এখন সম্পূর্ণ প্রযুক্তি নির্ভর। এখন প্রযুক্তি ছাড়া একটা মুহূর্তও কল্পনা করা যায় না। সমাজ প্রযুক্তি ব্যবহারে যতই উন্নতি সাধন করুক না কেন, কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই প্রযুক্তির ভয়াবহতা বেড়েই চলেছে।

প্রযুক্তি যেমন সমাজের কল্যাণ সাধনের সহায়ক, ঠিক তেমনি, সমাজের অকল্যাণ সাধনেও এই প্রযুক্তি বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। এই প্রযুক্তির অপব্যবহারে এখন অনেক অসাধু ব্যক্তি তাদের স্বার্থের জন্য সমাজকে বিভিন্ন হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে। বিশেষ করে, আমাদের তরুণ সমাজের মধ্যে এই প্রযুক্তির বিশেষ ভয়াবহ প্রভাব পড়েছে।

যেমন, স্মার্টফোন, স্মার্টফোন ছাড়া এখন আমরা এক মুহূর্ত ও কল্পনা করতে পারিনা। স্মার্টফোন যেমন আমাদের বিভিন্ন উপকার সাধন করছে, আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর ব্যবহার আশিকিতে পরিণত হয়েছে। পর্নোগ্রাফি ইত্যাদি। বিশেষ করে,

  এই পর্নোগ্রাফিতে আমাদের তরুণ সমাজ এখন প্রচন্ডভাবে আসক্ত হয়ে পড়েছে। এই পর্নোগ্রাফির প্রভাব আমাদের তরুণ সমাজের ওপর এমন তীব্রভাবে পড়েছে, যার কারনে অসংখ্য তরুণ এখন ধর্ষণের মতো ভয়াবহ অপরাধ করতেও দ্বিধাগ্রস্ত করে না। শুধু তরুণ সমাজ নয়, অনেক অভিভাবকগণ ও এখন এই পর্নোগ্রাফির প্রতি প্রচন্ড আসক্ত।

  প্রযুক্তি আমাদের একটি উন্নত সমাজ উপহার দিয়েছে, ঠিক তেমনি এই প্রযুক্তির অপব্যবহারে আমরা আমরা ধীরে ধীরে ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

  এই প্রযুক্তির অকল্যানে ধীরে ধীরে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে মানুষের মানবতা। মানুষ হয়ে উঠছে হিংস্র পশুর মত।

  সবকিছুর যেমন নেতিবাচক এবং ইতিবাচক দুটি দিক রয়েছে।

  ঠিক তেমনি তথ্যপ্রযুক্তি তার বিপরীত কিছু নয়।

  মানুষ স্বভাবতই নেতিবাচক বিষয়ের প্রতি বেশি আকৃষ্ট।

প্রযুক্তি একদিকে যেমন আমাদের জীবনকে সুন্দর করে তুলেছে, আবার অন্যদিকে এই প্রযুক্তির নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে মানব সমাজের উপর।

Related Articles
Comments

You must be logged in to post a comment.