গ্যাস সিলিন্ডারে বিস্ফোরণ থেকে বাঁচার উপায়।

Earning : ৳2.400

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে বাঁচার উপায় নিজে বাঁচুন অন্যকে সচেতন করুন?

আমাদের চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করুন

আমরা আমাদের আধুনিকতা বজায় রাখার জন্য আমরা সবাই চেষ্টা করি কম সময়ে বেশি কাজ করে ফেলার। আর কম সময় বয় আজ আমাদের টুথ ব্রাশ থেকে শুরু করে আমাদের রান্নাঘর পর্যন্ত চলে এসেছে বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় আমরা সকলেই সচরাচর এখন আমাদের রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকি।

পাড়ার কুঁড়েঘর থেকে শহরের দালান কোঠাতেও গ্যাস ব্যবহার করে এখন রান্নাবান্না করা হয় ।

আর এই রান্নাবান্না করার সময় বিভিন্নভাবে অসাবধানতাবশত ঘটে যাচ্ছে মারাত্মক সব দুর্ঘটনা যাতে সাধারণ ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি ঘটে চলছে প্রচুর প্রাণহানি। অনেকেই হারাচ্ছেন তার প্রিয়জনকে ।কথায় আছে না ‘‘একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না‘‘।

তাই চলুন জেনে নেওয়া যাক গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ প্রতিরোধে কি কি পদক্ষেপ ফলো করা যেতে পারে।

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ প্রতিরোধে করণীয়

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণকে প্রতিরোধ করতে যাওয়ার আগে আমাদের সকলেরই জেনে নেওয়া উচিত যে কেন গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা ঘটে অর্থাৎ সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা ঘটার প্রাথমিক কারণসমূহ কি কি। নিচে কয়েকটি পরীক্ষিত কারণ তুলে ধরা হলো::--

১. অধিক পুরাতন সিলিন্ডার ব্যবহার করা।

আমাদের সকলকে খেয়াল রাখতে হবে যে অধিক পুরাতন ছিলেন একটা অর্থাৎ মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে এমন কোন সিলিন্ডার আমরা ব্যবহার করছি কিনা।

২. সিলিন্ডার এবং চুলার সংযোগ লাইনটি চেক না করে রান্না শুরু করা।

বিষয়টি যদিও শুনতে হাস্যকর মনে হয় তারপরও সত্যি যে আমাদের বাড়িতে থাকা ইঁদুর মাঝে মাঝে সিলিন্ডারের লাইন কেটে ফেলে এতে করে গ্যাস জমা হয়ে বাইরে বের হয় আর ঘটতে পারে মারাত্মক সব দুর্ঘটনা ।হতে পারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ,এমনকি প্রাণহানিও।

৩. দরজা জানালা বন্ধ রেখে গ্যাস সিলিন্ডারে রান্না করলে ।

৪. সরাসরি লাইন সংযোগ এর ক্ষেত্রে হালকা একটু গ্যাস সব সময় চালিয়ে রাখা।

উপরে যে চারটি কারণ তুলে ধরা হলো এগুলোকে আমরা সচরাচর হেলাফেলা করে এড়িয়ে চলি। তাই হঠাৎ সিলিন্ডারে বিস্ফোরণের মাধ্যমে ঘটে চলেছে মারাত্মক সব দুর্ঘটনা ।এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি উপায় অবলম্বন করলে আমরা বিস্ফোরণ থেকে খুব সহজে বাঁচতে পারি।

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে বাঁচার উপায়

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ প্রতিরোধে করণীয় ছয়টি কাজ

১. ফায়ার সার্ভিস কর্তৃক প্রাথমিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা।

২. দরজা বা জানালা খোলা রেখে রান্না করা।

৩. সিলিন্ডার থেকে চুলার দূরত্ব মিনিমাম চার ফুট রাখা।

৪. সিলিন্ডার লিকেজ এড়িয়ে চলা।

৫. সময় মত বার্নার পরিবর্তন করা।

৬. নতুন প্লাস্টিকের সিলিন্ডার ব্যবহার করা।

লেখকের কথা 

ব্যক্তিগত সাবধানতায় আপনাদেরকে বিস্ফোরণ প্রতিরোধে সব থেকে বেশি সহায়তা করবে তাই নিজের বেশি সচেতন হোন এবং অন্যদেরকেও সাহায্য করুন।

Related Articles
Comments

You must be logged in to post a comment.