ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম

Earning : ৳4.800

ফেইসবুক থেকে টাকা ইনকাম :আমরা এখন এমন কাউকে খুঁজে পাবো না যার হাতে এন্ড্রয়ড ফোন আছে অথচ ফেসবুক চালাইনা। আবার এমন অনেক ছেলে মেয়ে আছে যারা  তাদের অধিকাংশ সময় ফেসবুক চালিয়ে অপচয় করে।

আমাদের চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করুন

আবার এমন আছে যারা ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করতে চায় কিন্ত সঠিক গাইড লাইনের অভাবে শুরু করতে পারি না। অথবা কেউ কেউ শুরু করলে আবার পরে হাল ছেড়ে দিয়ে চলে আসি।

আপনাদের একটা কথা বলি আপনারা যদি অনলাইন থেকে আয় করতে চান তাহলে  একটু পরিসশ্রম করতে হবে তাই না....ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার অনেক গুলো উপায় রয়েছে। আপনি হয়তো বা জানলে অবাক হবেন এখন প্রতি ১ সেকেন্ডে ৭ টি ফেইসবুক একাউন্ট খোলা হয়।

আর ফেসবুক এ কাজ করার জন্য ৪৪৪৯২ জন স্পেশালিস্ট কাজ করে থাকে। আর আপনি যদি নতুন  যেমন এমন যে আগে থেকে কিছু জানেন না যে আসলে ফেইসবুক থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়।

তাহলে আপনাকে বলবো পুরো পোস্টি আপনার জন্য। কারণ এই পোস্টি পুরো পড়লে আপনি ফেসবুক থেকে ইনকাম করার পুরো ধারণা টি পেয়ে যাবেন। এখন আমরা ফেসবুক থেকে টাকা ইনকামের কিছু গুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে জানবো। 

১.ফেসবুক একাউন্ট খুলে ইনকাম

আমাদের সবার তো একটা ফেসবুক একাউন্ট আছে রাইট। কিন্তু এখানে একটি কথা আছে।  আমরা কিন্তু আমাদের সাধারণ ফেসবুকঃ একাউন্ট দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবোনা। 

আপনারা মনে হয় এবার এটা ভাবছেন আমি তো প্রথমে বলেছিলাম ফেসবুক একাউন্ট দিয়ে টাকা ইনকাম করা যাবে  তাহলে এখন  এমন কথা বলছি।আমার হয় তো বা একটা কথা সবাই জানি না আজে নরমাল ফেসবুক একাউন্ট এ ৫০০০ এর  ওপরে ফলোয়ার অ্যাড হয় না।

আর আপনাকে ইনকাম করতে হলে ১০০০০ ফলোয়ার হতে হবে....আশা করি বুঝতে পেরেছি।এই  ফেসবুক একটিউইজার একাউন্ট থেকে ইনকাম করা যায় না। আর আরো একটি কথা আপনি সরা সরি এখন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন না।

এখন আপনাদের মনে একটা প্রশ্ন জাগছে না যে তাহলে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ফেসবুক থেকে। এবার  আসল কথা হলো ফেসবুক থেকে ইনকাম করার জন্য আপনার একটা ফেসবুক পেজ অথবা ফেসবুক ফ্যান পেজ থাকতে হবে। থলে আপনি ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক ফ্যান   পেজ বা লাইক হলো ফেসবুক এর অসাধারণ সব ফিচার এর মধ্যে অন্যতম। ফেসবুক প্রোফাইল এ বন্ধু বাড়ানোর জন্য যেমন ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাতে হয় বা রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করতে হয়। 

ফেসবুক ফ্যান পেজ এ এমন টা  করা লাগে না। আর আপনার যদি একটা ফেসবুক ফ্যান পেজ  থাকে তাহলে মানুষ সেখানে অনেক লাইক ও আপনার ফলোয়ার  বেড়ে যাবে। আর এই সুযোগ তাকে কাজে লাগিয়ে আপনি বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক পেজ  অনেক  করতে  পারবেন।   

এখন কথা হলো আপনি কিভাবে একটা ফেসবুক পেজ খুলবেন। 

তবে সর্ব প্রথম একটা কথা বলবো আপনার যদি আগে থেকে ফেসবুক পেজ খোলা থাকে আর সেখানে যদি অনেক লাইক র ফলোয়ার থেকে থাকে তাহলে আপনার র নতুন করে পেজ খোলার কোনো দরকার নেয়।

এ ক্ষেত্রে আপনি আপনার পুরোনো পেজ দিয়ে কাজ চালিয়ে যেতে পারেন। আর যদি আপনার পেজ না থেকে থাকে তাহলে আপনি একটা নতুন পেজ খুলে নিতে পারেন। এখন কথা হলো ফেসবুক ফ্যান পেজ কিভাবে খুলবো।

আপনি নতুন পেজ খোলার জন্য ইউটুবে এর সাহায্য নিতে পারেন। আপানি  ইউটুবে এ গিয়ে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন। লিখবেন কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলবো।অথবা how to create a facebook page. তারপর আপনি একটা পেজ খুলে নিবেন।

আর আপনি যদি মনে করেন আমারতো ফেইসবুক পেজ তৈরি করা হয়ে গিয়েছে তাহলে এখন থেকে আমি এখন অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবো তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন।এখন থেকে টাকা ইনকাম করতে হলে প্রয়োজনীয় সব শর্ত পূরণ করতে হবে।

তারপর আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  আর একবার যদি আপনার ফেইসবুক পেজ প্রচুর লাইক ও ফলোয়ার হয়ে যায় তাহলে আপনি টাকা ইনকাম করার অনেক উপায় খুঁজে নিতে পারবেন নিজে নিজে। কাজ টা  সহজ মনে হলেও আসলে অতটা সহজ না।

তারজন্য আপনাকে ধার্য ধরে কাজ করতে হবে। আর নিয়মিত কাজ করতে হবে  তাহলে দেখবেন আস্তে আস্তে আপনার পেজ এর লাইক ও ফলোয়ার বাড়তে থাকবে দিন দিন। আর হা একটা কথা মাথায় রাখতে হবে আপনাকে এমন কিছু করবেন যাতে মানুষ আপনার ভিডিও দেখার পর আপনার পরবর্তী ভিডিও গুলা দেখার জন্য কম্মেন্ট করে। যে আপনি পরবর্তী ভিডিও কখন দিবেন।

এভাবে যদি কাজ করতে পারেন তাহলে দেখবেন আপনার সফলতা কেউ ঠেকাতে পারবে না। আর হ্যা আপনার কাজ টা  যেন সেই বিষয়ে হয় যে বিষয়ে আপনি সব থেকে ভালো বুঝেন। তাহলে হবে কি আপনার কাজ করার ইচ্ছে টা  কখনো শেষ হবেনা।

আর আপনি একটু ভালো করে খেয়াল করে দেখবেন আপনি যে সম্পর্কে জানেন সেই সম্পর্কে কাজ করতে আপনার ভালোও লাগে।তাই আমি বলবো আপনি আপনার ভালো লাগার কাজ টি করেন তাহলে খুব তারা তারই আপনার কাছে সফলতা ধরা দেবে। তাই টপিক নির্বাচন অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

আর তাই বলবো আপনি যে টপিক সম্পর্কে ভালো বোঝেন বা জ্ঞান আছে পর্যাপ্ত বা যে বিষয়ে আপনি পারদর্শী সেই বিষয় নিয়ে মাঠে নেমে পারেন। আর আপনাকে কিন্তু  নিয়মিত কাজ করতে হবে। ফেসবুক পেজ এর ফলোয়ার ও লাইক বৃদ্ধি করার জন্য নিয়মিত পোস্ট করতে  থাকেন। 

একটা অনেক পরিশ্রমের ফল কিন্তু সুমধুর হয়। বা আপনার পোস্টে এ কে কেমন কমেন্ট করলো সেদিকে খেয়াল রাখুন। র সবার সাথে ভালো বেবহার করুন  ও সবার সাথে যোগাযোগ ভালো রাখুন। র আপনাকে যদি পার্সোনালি কেউ ফেসবুক এ নক করে তাহলে সুন্দর করে তার সাথে কথা বলুন।

কোহনো যেন তাদের সাথে কোনো প্রকার তর্কে জড়াবেন না তাতে আপনার ইমেজ খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই এসব সম্পর্কে ভালো করে খেয়াল রাখতে হবে। তারপর আপনি আরো কিছু কাজ করতে ;পারেন।

যেমন বিভিন্ন ফেসবুক পেজ এ জয়েন হতে পারেন। তাহলে এখন থেকে আপনারই লাভ  হবে। এতে  করে আপনার ফলোয়ার বাড়ার চান্স থাকে। তাছাড়া আপনি গ্রুপ এ অ্যাড হতে পারেন সেখান থেকেও আপনি ফলোয়ার পেতে পারেন। এভাবে কিছু নিয়ম মেন্টেন করে কাজ করেন দেখবেন এক সময় আপনার পেজ এ ফলোয়ার পূর্ণ হয়ে গিয়েছে।

আর বিশ্বাস করেন একবার যদি আপনার সব শর্ত পূরণ হয়ে যায় তাহলে আপনাকে র পীশোন ফায়ার তাকাতে হবে না।  বা চাকরির পিছনে ছুটতে হবে না। আপনিও এখন থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আবার যদি আপনার কোনো বিজনেস থাকে তার নামেও পেজ খুলতে পারেন।

এতে হবে কি প্রথম থেকেই আপনার একটি ইনকাম হবার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়াও যখন আপনার বিজনেস পেজ এ যখন প্রচুর পরিমানে লাইক ও ফলোয়ার হয়ে যাবে তখন আপনি চাইলে খুব সহজে আপনার পেজ এর মাদ্ধমে আপনার পণ্যের প্রচার করতে পারবেন।

এতে সহজে আপনার পণ্যের প্রচার করতে পারবেন ও ক্রেতা দেড় কাছে বিক্রয় করতে পারবেন। 

ফেইসবুক এ ভিডিও uploud করে টাকা ইনকাম করতে পারেন। আর এখন থেকে ইনকাম করতে হলে আপনাদের নিয়মিত ভিডিও বানাতে হবে। র ভিডিও কোয়ালিটি ভালো হতে হবে যাতে মানুষ ওই ভিডিও তা দেখে। আপনাকে ভিডিও উuploud করার সময় খেয়াল রাখতে হবে যেন কোনো রকমের কোনো ভুল না হয়।

তারপর এখন থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনার ভিডিও তে অ্যাড শো করতে হবে। এটাকে বলা হয় monetization বা in - stream ads .in stream ads হলো এমন একটা সার্ভিস যেটার  মাদ্ধমে আপনার পেজ এর ভিডিও তে ads দেখিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়.আর তার জন্য আপনাকে কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে 

তাহলে আপনার পেজ টি ইনকাম করার জন্য প্রস্তুত হবে 

Related Articles
Comments

You must be logged in to post a comment.